১১ই জুলাই, ২০২০ ইং , ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ




৮ এপ্রিল, ২০২০ , ২০:২২ আপডেট: ৮ এপ্রিল, ২০২০ ,২০:২৯

মাস্ক: যতই গৃহবন্দি থাকুন না কেন, অতি প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হতেই হয়। আবার লক ডাউন শেষ হয়ে গেলেও বের হতে হবে বাড়ির বাইরে। তখনও কিন্তু সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য আমাদের সবারই মাস্কের প্রয়োজন পড়বে। বাজারে এন 95 বা এন 97 মাস্ক দুর্লভ। যা আছে তা পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। অসুস্থ হলেও এই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। মাস্কের আকার এবং গঠন সম্পর্কে সবারই মোটামুটি ধারণা আছে। পুরোনো টি-শার্ট থেকে ডাবল লেয়ার কাপড় কেটে তেমন মাস্ক সহজেই বানিয়ে নিন, উপহার দিন বন্ধুদের। বেশ কয়েক জোড়া তৈরি করুন সবার জন্য, বাইরে থেকে ফিরে মাস্ক ধুয়ে ফেলার অভ্যেস তৈরি করতে হবে।

ব্যাগ: গৃহবন্দি থাকতে শুরু করার পর থেকে পলিথিন বা প্লাস্টিকের ব্যবহারও কমেছে অনেকটাই। প্রতিদিনের নানা কাজে ব্যবহারের জন্য যদি কাপড়ের থলে তৈরি করে নেয়া যায়, তা হলে কেমন হয়? দু’টি মোটামুটি শক্তপোক্ত টি-শার্ট নিন। বগলের নিচ থেকে একেবারে সমান করে কেটে নিন। একটি অন্যটির ভিতর ঢুকিয়ে তিনদিক সেলাই করুন। শার্টের উপরের দিকটা ফালি ফালি করে কেটে বিনুনি পাকিয়ে নিয়ে হ্যান্ডেল তৈরি করে লাগিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেল বাজারের ব্যাগ!

T-shirt-3.jpg

চুল মোছার কাপড়: গোসলের পর চুল মোছার জন্য এর থেকে ভালো কিছু হয় না। পুরোনো টি-শার্টের আদরে তোয়ালের চেয়ে অনেক বেশি আরামে থাকবে আপনার চুল।

স্মৃতি সংরক্ষণ: হয়তো প্রিয়জনের কাছ থেকে পাওয়া উপহার বা নিজের টিউশনির টাকা জমিয়ে কেনা প্রথম পোশাক- এ ধরনের আবেগ জড়িয়ে আছে কোনো টি-শার্টের সঙ্গে। তেমন সব ক’টি পুরোনো জামা প্রথমে বগলের নিচ থেকে সোজাসুজি কেটে নিন। তার পর সামনে আর পিছনের অংশ আলাদা করুন। এবার সব টুকরোগুলো পাশাপাশি রেখে জুড়ে নিন সেলাই করে। এর নিচে পুরোনো সিল্কের শাড়ি সেলাই করে জুড়ে নিন- চমৎকার নকশি কাঁথা তৈরি হয়ে যাবে!